উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ | আবুল হাসনাত বাঁধন

উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ | আবুল হাসনাত বাঁধন

ফেসবুকে কিংবা গুগল অ্যাডওয়ার্ডের মাধ্যমে ওয়েবসাইট / অ্যাপ / ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দিলে অ্যাড বাজেটের ১৫% ভ্যাট কেটে নিচ্ছে ব্যাংক।

বাংলাদেশি কার্ড দিয়ে পেমেন্ট করলেই এই ভ্যাট কাটছে! মানে ধরুন, আপনি ফেসবুকে ৫ ডলার বুস্ট করলেন! এরপর সেই টাকা বাংলাদেশি কার্ড দিয়ে ফেসবুককে পে করলেন! ব্যাংক আপনার কার্ড থেকে কেটে নেবে ৫.৭৫ ডলার! গুগল অ্যাডের ক্ষেত্রেও সেম।

শুধু অ্যাডে না! বাংলাদেশি কার্ড দিয়ে অনলাইন থেকে মানে অ্যামাজন-আলীবাবা থেকে কিছু ক্রয় করলেও ১৫% ভ্যাট কেটে নিচ্ছে! এমনকি সামান্য ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন করলে পর্যন্তও।

আরও পড়ুন: বই পড়ার মধ্যমে হতাশা থেকে মুক্তি!

এই অংকটা একটু বড়ো করে দেখলে দেখবেন হিউজ অ্যামাউন্ট! ১০০ ডলারে ১৫ ডলার করে! হাজারে ১৫০ ডলার!

অথচ সারাবিশ্বের সকল দেশের নিয়ম দেখেন, কনজুমাররা এভাবে কোনো ভ্যাট দেয় না! ভ্যাট দেয় বিজনেসম্যানরা! এমনকি আমাদের দেশেও ব্যবসা করতে আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স নিতে হয়। লাইসেন্সের মাধ্যমে ভ্যাট প্রদান করেই আপনি লিগ্যাল বিজনেস করতে পারবেন! আর অন্যরাও ভ্যাট দেবে তাদের ইনকাম থেকে, ইনকাম ট্যাক্স হিসেবে! জাস্ট শপিং করার জন্য কনজুমাররা ভ্যাট দিচ্ছে এমন উজবুক সিস্টেম, আর কোনো দেশে আছে কিনা আমার জানা নেই!

এমনিতে আমরা দেশে যত প্রোডাক্ট কিনি, মানে দোকান থেকে যতকিছু কিনি সেগুলোতেও কিন্তু পরোক্ষ ভ্যাট দিই! কারণ আমাদের ক্রয়মূল্যের ভেতরেই ভ্যাট ইনক্লুড থাকে! কিন্তু অনলাইন পারচেসিং এ যে ভ্যাট কাটছে এটা ক্রয়মূল্যের সম্পূর্ণ বাইরে!

আরও পড়ুন: আড়ি | আবুল হাসনাত বাঁধন

অনলাইনে অ্যাডভার্টাইজিং এর ওপর ভ্যাট আনা নিয়ে যখন কথা হচ্ছিল, তখন বলা হচ্ছিল বাংলাদেশের লোকাল ভ্যাট ‘ল’ অনুযায়ী – ফেসবুক ও গুগল কোম্পানিকেই বাংলাদেশে বিজনেস করতে হলে, বাংলাদেশে তাদের অফিস কিংবা অ্যাজেন্ট দিতে হবে; যার মাধ্যমে তারা ভ্যাট পে করবে বাংলাদেশকে! ওরা বিজনেজ করছে, ওরা ভ্যাট দেবে; এটা খুবই ফেয়ার রুলস!

কিন্তু আসলে এই রুলস অ্যাপ্লাই হয়েছে কিনা, আদৌ গুগল আর ফেসবুক সরকারকে ভ্যাট দিচ্ছে কিনা; আমার জানা নাই!

কিন্তু এখন উল্টো আমরা কনজুমারদের ১৫% ভ্যাট দিতে হচ্ছে! কোম্পানিগুলোও যদি ভ্যাট দেয়; তাহলে তো সরকার ৩০% ভ্যাট খাচ্ছে এখন! অদ্ভুত! আমরা অ্যাডের টাকাও দিচ্ছি; আবার ভ্যাটও দিচ্ছি; আবার কার্ডে রিচার্জ করার সময়ও ভ্যাট দিচ্ছি!

আরও পড়ুন: আত্মজা | আবুল হাসনাত বাঁধন

আর অ্যাড দেওয়া নিয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এ একটা সেক্টর তৈরি হয়েছে; অনেকে এই গুগল-ফেসবুক অ্যাডের ওপর নির্ভর করে জীবিকা নির্বাহ করে! আর ডোমেইন হোস্টিং কেনার মতো; বিভিন্ন অনলাইন পারচেসিং- সাধারণ মানুষের চেয়ে আমাদের মতো ফ্রিল্যান্সাররা করে বেশি! তাই যা মারা খাওয়ার; আমরা ফ্রিল্যান্সাররাই খাচ্ছি!

অনলাইনে অ্যাড দিয়ে ১ ডলারে ৫/১০ টাকা লাভ হয় মাত্র! এখন ১৫% ভ্যাট দিয়ে উল্টো ৫-১০ টাকা নিজের পকেট থেকে দেবে নাকি মার্কেটাররা!!

ফ্রিল্যান্সারদের জন্য এখনো পর্যন্ত পেপাল এনে দিতে পারল না; অথচ ১৫শ টাকা দিয়া কার্ড বানানোর নতুন নাটক শুরু হয়ে গেছে!

কবির ভাষায় বলতে হয়- উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ!

আরও পড়ুন: বেস্ট প্রাইসে ডোমেইন কিনবেন কীভাবে?

লেখা: উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ!

লিখেছেন: আবুল হাসনাত বাঁধন

তারিখ: ১২/১২/২০২০

স্থান: পটিয়া, চট্টগ্রাম।

8 thoughts on “উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ | আবুল হাসনাত বাঁধন”

মন্তব্য করুন:

%d bloggers like this: