সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করুন ঘরে বসে!

সেলফ ডিজিটাল হলো একটা ই-কমার্স বেইজ প্ল্যাটফর্ম। কোনো প্রকার ঝক্কি-ঝামেলা ছাড়াই আপনারা সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করতে পারবেন ঘরে বসেই! এজন্যই ধীরে ধীরে সেলফ হয়ে ওঠছে, যেকোনো বয়সি মানুষের জন্য বেস্ট অনলাইন আর্নিং প্ল্যাটফর্ম। সেলফে মোট ৩২ টা ফিচার আছে, তবে এখনো ৬টা চালু হয়েছে, বাকিগুলো আস্তে আস্তে হচ্ছে। সেলফের মূল কাজ হলো যত ধরনের বিজনেস আছে, সবগুলোকে অনলাইনে একটা প্ল্যাটফর্মে এনে গ্রাহককে সেবা দেওয়া। তবে অন্যান্য বিজনেসের চেয়ে সেলফের ডিফারেন্স হলো, গ্রাহক অন্য কোথাও থেকে সেবা নিলে কোনো প্রফিট কিংবা ইনকাম পায় না; কিন্তু সেলফে প্রতিটা সেবার জন্য গ্রাহক প্রফিট পায়। মানে ধরেন, আপনি মোবাইল রিচার্জ করবেন, টাকা পাবেন, কোনো কিছু কেনাকাটা করবেন টাকা পাবেন, এরকমভাবে সেলফের সব ফিচার থেকেই কমিশন আয় করতে পারবেন! তো চলুন, সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করার উপায়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

আরও পড়ুন: বেস্ট প্রাইসে ডোমেইন কিনবেন কীভাবে?

সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করার উপায়

সেলফে তিন ধরনের অ্যাকাউন্ট আছে:

  • ফ্রি গ্রাহক অ্যাকাউন্ট
  • সেবাদাতা অ্যাকাউন্ট
  • বিজনেস অ্যাকাউন্ট

প্রথম দুটো অ্যাকাউন্ট সম্পূর্ণ ফ্রি। গ্রাহক অ্যাকাউন্ট করলে শুধুমাত্র সেলফ থেকে বিভিন্ন সেবা নিলে সেখান থেকে কমিশন বোনাস পাওয়া যায়, অ্যামাউন্টটা খুবই কম! আর সেবাদাতারা নিজেদের প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিস সেল করে। লাস্টের বিজনেস অ্যাকাউন্টটা হলো মূলত যারা সেলফ থেকে ভালো পরিমাণ আয় করতে চায় তাদের জন্য, এটার জন্য ১০০০ টাকা অ্যাকাউন্ট ফি লাগে! যারা বিজনেস অ্যাকাউন্ট করে, তারা অন্যদের রেফার করতে পারে এবং প্রতিটা বিজনেস অ্যাকাউন্ট রেফারের জন্য ২০০ টাকা করে কমিশন পায়, তাও আবার ১০ লেভেল পর্যন্ত অর্থাৎ নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর মতো! আর সেলফের প্রতিটা সেবা থেকেও ১০ লেভেল পর্যন্ত রেফার কমিশন আয় করা যায়! অর্থাৎ আপনার রেফারকৃত কেউ সেলফ থেকে সেবা গ্রহণ করলে সেটা থেকেও আপনি কমিশন পাবেন!

আরও পড়ুন: সেরা ৫টি ফ্রি সিএমএস প্ল্যাটফর্ম!

সেলফে বর্তমানে চালু থাকা ফিচারগুলো হলো:

  • মোবাইল রিচার্জ: সেলফ থেকে আপনি মোবাইল রিচার্জ করলে ১.২৫% ক্যাশব্যাক পাবেন! এমনকি আপনি বিজনেস অ্যাকাউন্ট না হলেও, নরমাল অ্যাকাউন্টেও পাবেন এটা। তবে বিজনেজ অ্যাকাউন্ট হলে, নিজের রিচার্জে ক্যাশব্যাক পাবেন, সাথে আপনার রেফারকৃত কেউ রিচার্জ করলে সেটা থেকেও পাবেন ১০ লেভেল পর্যন্ত। আর আপনি নরমাল অ্যাকাউন্ট দিয়ে মোবাইল রিচার্জ ব্যবসা করলে বিকাশ অ্যাজেন্টদের থেকে ভালো আয় করা সম্ভব! কারণ বিকাশে ১ লক্ষ টাকা লেনদেন হলে অ্যাজেন্টরা কমিশন পায় ৪৫০ টাকা মাত্র! অন্যদিকে সেলফে ১ লক্ষ টাকা লেনদেন করতে পারলে ইনকাম হবে ২-২.৫ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন: উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ | আবুল হাসনাত বাঁধন

  • আউটলেট: আউটলেট হলো আমাদের দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকানপাট। সেলফে যুক্ত থাকা আউটলেট থেকে আপনি কিছু কিনলে ক্যাশব্যাক / বোনাস পাবেন! আবার আপনি নিজে দোকাদার হলে, সেলফে যুক্ত হয়ে আপনার সেলস বাড়াতে পারবেন! আর এক্সট্রা রেফার কমিশন পেতে চাইলে বিজনেস একাউন্ট করতে হবে।
  • ডিজিটাল পেমেন্ট: সেলফে বিকাশ+রকেটের মতো ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম রয়েছে! তবে এর সুবিধা হলো, বিকাশ বা রকেটে ট্রানজেকশনে টাকা কাটে অনেক। অন্যদিকে সেলফে টাকা লোড করলে উলটো বোনাস/কমিশন পাওয়া যায়। আর সেলফ টু সেলফ সেন্ড মানি-ক্যাশআউট সম্পূর্ণ ফ্রি!
  • বাস টিকেটিং: অনলাইনে যত বাসের টিকেট পাওয়া যায়, ওগুলো সেলফের মাধ্যমেও নেওয়া যায়! সাধারণত বাসের টিকেট কিনলে আপনার কোনো লাভ নেই! কিন্তু সেলফ থেকে বাস টিকেট কিনলে সেটাতেও ক্যাশব্যাক আছে। আর বিজনেস অ্যাকাউন্ট হলে রেফারকৃতদের টিকেট থেকেও কমিশন পাবেন ১০ লেভেল পর্যন্ত!
  • রাইড শেয়ারিং: পাঠাও,উবার এসবে রাইড নিলে আমাদের কোনো প্রফিট নেই! কিন্তু সেলফ থেকে রাইড নিলে সেটাতেও ক্যাশব্যাক! আর বিজনেস অ্যাকাউন্ট হলে রেফারকৃতদের শেয়ার করা রাইড থেকেও কমিশন পাবেন!

আরও পড়ুন: ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচানোর উপায়!

  • রিসেলার শপ: সেলফ রিসেলার শপ থেকে আপনি অন্য জনের প্রোডাক্ট চুজ করে, ঘরে বসে রিসেল করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। আবার অ্যামাজনের মতো অ্যাফিলিয়েট কমিশনও আয় করতে পারবেন! মজা ব্যাপার হলো- আপনার রেফারকৃত কেউ সেলফ রিসেলার শপে কেনা-বেচা করলে সেখান থেকেও আপনি কমিশন পাবেন!

এই ফিচারগুলো বর্তমানে চালু আছে। বাকিগুলো আস্তে আস্তে চালু হবে, সাইটে গেলে সব বুঝবেন!

সাইট লিংক: সেলফ ডিজিটাল
রেফার আইডি: 210490

অ্যাকাউন্ট করার সময় নিজের সচল মোবাইল নাম্বার দিয়ে অ্যাকাউন্ট করবেন। সব ইনফো ঠিকঠাক দেবেন। আর রেফার আইডির স্থানে ওপরের রেফার আইডিটি [210490] দেবেন। প্রথমে ফ্রি অ্যাকাউন্ট করবেন। এরপর বিকাশের মাধ্যমে কস্টিং ফান্ড অ্যাড করবেন ১০০০ টাকা। বিকাশ না থাকলে, অন্য কোনো সেলফ ইউজার থেকে সেন্ড মানি নিতে পারেন! এরপর সেই টাকা দিয়ে বিজনেস অ্যাকাউন্ট অ্যাক্টিভেট করে নিতে পারবেন।

আপনি মাত্র ৫ জনকে রেফার করেই আপনার ইনভেস্টমেন্ট তুলে নিতে পারবেন। এরপর দেখা যাবে সেই ৫ জন থেকেই আপনার প্রতিদিন ৩০০-৫০০ টাকা অটোমেটিক ইনকাম হচ্ছে। কারণ ওরাও ওদের বন্ধুদের রেফার করবে, আপনি সেখান থেকেও কমিশন পাবেন। এভাবে ১০ লেভেল পর্যন্ত অটো কমিশন পাবেন। এর পাশাপাশি মোবাইল রিচার্জ আর ডিজিটাল পেমেন্টের ব্যবসা মন দিয়ে করতে থাকলে, প্রতি মাসে খুব সহজেই ১০-১৫ হাজার টাকা ইনকাম চলে আসবে। আর মোটামুটি ভালো একটা টিম বানিয়ে ফেলতে পারলে, আপনি সেলফের মাধ্যমেই ব্রাইট ক্যারিয়ার গঠন করতে পারবেন আশা করি।

আরও পড়ুন: ধুপপানি ঝরনা ভ্রমণ | প্রসেনজিৎ পাল

আপনারা যারা সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করতে চান, সেলফের অন্যান্য ফিচার, কমিশন স্ট্র্যাকচার, বিভিন্ন অফার-বোনাস, গিফট, ইত্যাদি নিয়ে বিস্তারিত সাইটে দেখে নিন। কোনো কিছু না বুঝলে আমাদের জানান, বুঝিয়ে দেবো। ধন্যবাদ।

One thought on “সেলফ ডিজিটাল থেকে আয় করুন ঘরে বসে!”

মন্তব্য করুন:

%d bloggers like this: